আকাশলীনা (Akashleena Literary & Cultural Organization, ALCO)

আকাশলীনা ছবি/  Photo Album যোগাযোগ কবিতার ক্লাস প্রচ্ছদ কবিতার এলোমেলো ভেলা ডাহুক বিগত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান News/Video Clips ENGLISH VERSION ফিরে দেখা 'আকাশলীনা' আকাশলীনা-ডায়াসপোরা সংখ্যা

আকাশলীনা Akashleena, is a non-profit, non-political and non-discriminatory, IRS 501c(3) tax-exempt organization. Year of establishment 2009

UPCOMING EVENT: AKASHLEENA ARTS & CULTURAL PROGRAM--2018

আকাশলীনা--'দখিনের জানালায় বাংলার মুখ'--২০১৮ অনুষ্ঠিত হবে

ডিসেম্বর ১৫, শনিবার  ------ বিস্তারিতঃ

আকাশলীনা-দখিনের জানালায় বাংলার মুখ-২০১৮

 

Akashleena/আকাশলীনা Literary & Cultural Organization (ALCO) presents the Bengali Feature Film "DEBI"; A Bioskope Films USA Distribution at AMC Mall of Louisiana in Baton Rouge, Louisiana.

First ever Bangladeshi film show in Baton Rouge, Louisiana, just before the Victory Day of Bangladesh, a film based on legendary novelist Humayun Ahmed.  

A story following the life of Ranu (Joya Ahsan) and her paranormal powers. She goes to psychiatrist Misir Ali (Chanchal Chowdhury) to find an answer to all her questions.

Director: Anam Biswas

Writers: Humayun Ahmed (novel), Anam Biswas (screenplay by)

Stars: Animesh Aich, Jaya Ahsan, Chanchal Chowdhury

গীতবিতানঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর         সুরাইয়া খানমঃ নির্বাচিত কবিতা                             

কাজী নজরুল ইসলামঃ জীবন ও কাজ            ইকবাল হাসান: নির্বাচিত ছো্টগল্প

জীবনানন্দ দাশঃ কবিতা                                মুজিব ইরমঃ নির্বাচিত কবিতা

জসীমউদ্দিনঃ কবর                                        হাসান ফেরদৌসঃ নির্বাচিত কলাম

পূরবী বসুঃ নির্বাচিত ছোটগল্প

ফেরদৌস নাহারঃ কবিতা

ফটো গ্যালারী/ Photo Album

ENGLISH VERSION


গতকালের ইতিহাস যার কাছে অজ্ঞাত, বর্তমান তার পরিচিত নয় এবং আগামীকালের জন্যেও প্রস্তুত নয় সে


ALCO (Akashleena Literary & Cultural Organization), Akashleena®, is a non-profit, non-political and non-discriminatory, IRS 501c(3) tax-exempt organization. Year of establishment 2009

Upcoming Event: আকাশলীনা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান--২০১৮

Date: December 15th, 2018

Time: 5pm to 7pm

Place: AMC Mall of Louisiana

Details:

'এ-কথাই সব সময় ভাবি--আবার একটি আগামীকাল আসবে। ঔৎসুক্য নিয়ে দূরের দিকে তাকাই, অনেক সকালে পথ-ঘাট শব্দহীন, রুদ্ধ জানালাগুলো স্তব্ধ হয়ে আছে, আকাশ অস্পষ্ট, শুধু কয়েকটি কাক পাখা ঝাপ্‌টিয়ে উড়ে যায়। আজ সকাল বেলায় আমার অতীত যেন মুছে গেল এবং প্রতিমুহূর্তে ভবিষ্যৎ যেন শিশিরবিন্দুর মতো ঝরে পড়লো। আমার পৃথিবী যেন প্রত্যাবর্তনহীন দ্বীপান্তর। আমগাছগুলো কি চিরকাল এরকম ছায়া ফেলবে? মাটিতে ঘরবাড়িগুলো একই রকম দাঁড়িয়ে থাকবে? প্রশ্নের কোনও উত্তর নেই, জনপদের কুয়াশায় একটি সকাল জাগছে, ক্রমশঃ সূর্যের রূপায় হারিয়ে যাচ্ছে, শব্দহীন সময় অনেক কথায় ভরে যাচ্ছে এবং আজকের দিনটি শেষ হলেই আগামীকাল আসবে। এ-ভাবে যদি চিরকাল বর্তমান শেষ হয়ে নতুন বর্তমান আসে, তা হলে আমার যাত্রার আরম্ভ কোথায়, শেষই বা কোথায়?'


বাংলা সংবাদপত্র/ অন্য কাগজ/ অন্য লিংক........

বাংলাদেশ দূতাবাস  ইত্তেফাক   ভোরের কাগজ   প্রথম আলো   জনকন্ঠ   নয়া দিগন্ত   যুগান্তর   আমাদের সময়   সমকাল   কালের কন্ঠ   বাংলাদেশ প্রতিদিন   মানব জমিন   যায় যায় দিন   দেশবাংলা   এখন সময়   আনন্দ বাজার পত্রিকা   The Daily Star   The New Nation   সাপ্তাহিক ২০০০   bdnews24   খবর   মরু পলাশ   NYবাংলা   ক্রিকেট   Cricinfo  Bangladesh Embassy in USA ফোবানা/Fobana


আকাশলীনা-য় লেখা পাঠাবার ঠিকানা


ALCO (Akashleena Literary & Cultural Organization)


আকাশলীনা সংকলন

আকাশলীনা--২০০৮ 

আকাশলীনা--২০০৬ 

আকাশলীনা--২০০৫ 

কাশলীনা--২০০৩ 

আকাশলীনা--২০০৭

আকাশলীনা-র লেখক ও কবি পরিচিতি


আকাশলীনা/Akashleena News

Upcoming Event: আকাশলীনা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান--২০১৮

সময়ঃ

স্থানঃ

বিস্তারিত/Details


পুরনো লেখাঃ

স্বাধীনতা, কার স্বাধীনতা?

বুক রিভিউঃ আকাশলীনা

সম্পাদকীয় ও অন্যান্য

আকাশলীনা সাহিত্যপত্রের শুভেচ্ছাপত্র


কবিতার ক্লাস/ শব্দের সম্ভাবনা/ সময় ও নানা প্রেক্ষিত

 


গতকালের ইতিহাস যার কাছে অজ্ঞাত, বর্তমান তার পরিচিত নয় এবং আগামীকালের জন্যেও প্রস্তুত নয় সে

 


বিন্দুতে সিন্ধুর গভীরতা


"যে পৃথিবী সব থেকে সুন্দর/ তা আজও আমরা পাইনি,

সব থেকে সুন্দর শিশু/ আজও বেড়ে ওঠেনি,

মধুরতম যে কথা বলতে চাই/ তা আজও আমরা বলিনি।"


 

 

 


বিন্দুতে সিন্ধুর গভীরতা


আকাশলীনা --  অনাবাসী কবি ও লেখকদের কবিতা, ছোটগল্প ও প্রবন্ধ সংকলন/Anthology


বাংলা দেখা না গেলে/ Download AVRO (অভ্র) 


 কবিতার এলোমেলো ভেলাঃ

যারা ভালোবাসে, ভালোবেসে জ্বলে, জ্বলে পৃথিবীর দিগন্তকে রাঙিয়ে দেয় ভিন্ন এক গোধুলি আলোয় --

'যা দিয়েছি তা কি কখনও ফিরিয়ে নিতে পারি? যা ঘটেছে, তা অসম্পূর্ণ হলেও, কখনও ঘটেনি এমন সাব্যস্ত কি করা যায়? হয়তো ক্রমশঃ অনেক অভিজ্ঞতার উপাদান সঞ্চয় করে কোনও এক সময়ে যা প্রাসঙ্গিক ছিলো তা আমরা বিস্মৃত হই। যেহেতু প্রাসঙ্গিকতার মধ্যেই জীবনের বর্তমানতার চলচ্চিত্র, তাই হয়তো পূর্বের প্রসঙ্গকে আমরা হারিয়ে ফেলি। কর্মব্যস্ত মানুষের জন্য স্মৃতির সঞ্চয় একটি অসম্ভব নিরুদ্ধতা। কিন্তু কবি অনন্ত সময় এবং কালের বিস্তারের মধ্যে বাস করেন, তাই তাঁকে বেদনার অনুকম্পন আবিষ্কার করতে হয়। এ-বেদনা স্মৃতির মধ্যে যতটা বিকশিত, জীবনের বর্তমান বা ভবিষ্যতের সঙ্গে ততটা প্রবাহিত নয়। প্রভাতের অরুণশ্রীর সুন্দরতার মতো, সমস্ত প্রাচীন বেদনা কবির চিত্তে নতুন উপলব্ধির ব্যঞ্জনায় জাগ্রত হয়। ভালোবেসে আমি যা দিয়েছি, ফিরিয়ে নিতে চেয়েও তা ফিরিয়ে নিতে পারি না। একদিন সর্বস্ব চেয়ে যে প্রার্থনা করেছিলাম, পূর্ণ হলো না বলে সে-প্রার্থনার সকল চিহ্ন মুছে ফেলতে চাই কিন্তু পারি না।'

'মা, আমি বড় হয়ে তোমার ইচ্ছাকে

পূর্ণ করতে পারলাম না।

বাতাসে প্রদীপের শিখার মতো অসহায় আমি

মহাপুরুষ হতে ভয় পেলাম--

রৌদ্রে প্রজাপতির ডানার আড়ালে

রক্তগোলাপকে দেখে,

আমি সাধারণ মানুষের আগ্রহ এবং দুঃখের মধ্যে

একজন একাকী কবি হলাম।'

'অন্যায়কে বাধা দিয়ে কোনও লাভ নেই, কেন না ক্রমান্বয়ে বাধা পেয়ে অন্যায় সর্বদাই প্রবল হয়। সঙ্গত কর্মের দ্বারা অন্যায়কে অতিক্রম করতে হয়। এ ভাবেই অপশিল্পকে অগ্রাহ্য করবার উপায় হচ্ছে, মহৎ শিল্পসৃষ্টির আকাঙ্ক্ষায় অগ্রসর হওয়া। দুর্বল কাব্যকে অপ্রশংসা করে কোনও লাভ নেই--প্রশংসা-অপ্রশংসার কোনও বাণী উচ্চারণ না করে তাকে অস্বীকার করতে হবে, নির্বিরোধে যেন নিশ্চিহ্ন হবার পথে সে কোনও বাধা না পায়।'

'কোনো কিছুই হারায় না, কোনো কিছুই চিরকালের জন্য নিঃশেষ হয় না। নিস্তরঙ্গ শব্দহীনতাও সর্বকাল বেঁচে থাকে। সঙ্গীতের বাণী স্মরণে থাকে না কিন্তু সুরের আনন্দ নিঃশব্দকে চিরকাল সচকিত করে। যে পাখী প্রত্যুষে ডানা মেলে আকাশে উড়লো এবং যাকে কখনও ফিরিয়ে আনা যায় না, আমাদের প্রতিদিনের ঊষায় ঘুম ভেঙে তাকেই প্রত্যহ উড়ে যেতে দেখি। যে-শব্দ উচ্চারিত হয়েছিলো, যে-শব্দ উচ্চারিত হলো এবং যে-শব্দ উচ্চারিত হবে সবই যেন একই অনিঃশেষ কলকন্ঠের বন্যাধারা।'

'এ-কথাই সব সময় ভাবি--আবার একটি আগামীকাল আসবে। ঔৎসুক্য নিয়ে দূরের দিকে তাকাই, অনেক সকালে পথ-ঘাট শব্দহীন, রুদ্ধ জানালাগুলো স্তব্ধ হয়ে আছে, আকাশ অস্পষ্ট, শুধু কয়েকটি কাক পাখা ঝাপ্‌টিয়ে উড়ে যায়। আজ সকাল বেলায় আমার অতীত যেন মুছে গেল এবং প্রতিমুহূর্তে ভবিষ্যৎ যেন শিশিরবিন্দুর মতো ঝরে পড়লো। আমার পৃথিবী যেন প্রত্যাবর্তনহীন দ্বীপান্তর। আমগাছগুলো কি চিরকাল এরকম ছায়া ফেলবে? মাটিতে ঘরবাড়িগুলো একই রকম দাঁড়িয়ে থাকবে? প্রশ্নের কোনও উত্তর নেই, জনপদের কুয়াশায় একটি সকাল জাগছে, ক্রমশঃ সূর্যের রূপায় হারিয়ে যাচ্ছে, শব্দহীন সময় অনেক কথায় ভরে যাচ্ছে এবং আজকের দিনটি শেষ হলেই আগামীকাল আসবে। এ-ভাবে যদি চিরকাল বর্তমান শেষ হয়ে নতুন বর্তমান আসে, তা হলে আমার যাত্রার আরম্ভ কোথায়, শেষই বা কোথায়?'

Editor & Published by Quamrun Zinia

© ALL Rights Reserved

72194